মান্দায় নির্বাচনী সহিংসতা : স্বতন্ত্র চেয়ারম্যানসহ চারজন কারাগারে

নওগাঁর মান্দায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সহিংসতার ঘটনায় নৌকা প্রার্থীর কর্মীর মামলায় গনেশপুর ইউনিয়নের নবনির্বাচিত স্বতন্ত্র (বিএনপি সর্মথিত) চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বাবুল চৌধুরীসহ চারজনকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

রোববার সকালে ওই মামলার ছয় আসামি নওগাঁর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এ আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। শুনানী শেষে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বাবুল চৌধুরীসহ চারজনের জামিন নামঞ্জুর করে বিচারক বিকাশ কুমার বসাক তাদের জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এ মামলার অপর দু’আসামি রশিদুল ইসলাম চৌধুরী ও নাজিম উদ্দিন মণ্ডলকে অবশ্য জামিন দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত ১২ নভেম্বর প্রতীক বরাদ্দের পর প্রচারণার সময় গনেশপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী হানিফ উদ্দিন মণ্ডলের কর্মীদের হামলায় স্বতন্ত্র (বিএনপি সর্মথিত) চেয়ারম্যান প্রার্থী শফিকুল ইসলাম বাবুল চৌধুরীর কর্মী-সমর্থকরা নিহত ও আহত হন। এক সময় উভয় প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এদের মধ্যে স্বতন্ত্র (বিএনপি সমর্থিত) চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মী ইমরান হোসেন রানা গত ১৮ নভেম্বর রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

সংঘর্ষের ওই ঘটনায় নৌকার প্রার্থীর কর্মী আবদুল হামিদ ১২ নভেম্বর রাতে স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুল ইসলামসহ ৬০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। অন্যদিকে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী হানিফ উদ্দিন মণ্ডলসহ ১০৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা দু’শ’ জনের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা করেন নিহত ইমরান হোসেন রানার মা রেজিয়া পারভীন ।

এ ঘটনায় জেলা ও উপজেলা বিএনপি নেতারা গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে মিথ্যা সাজানো মামলা থেকে শফিকুল ইসলাম বাবুল চৌধুরীর মুক্তি দাবি করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ছাত্রদলের বিক্ষোভ
Next post মানসিক ভারসাম্যহীন বাংলাদেশী যুবককে আটকের আট দিন পরেও ফেরত দেয়নি বিএসএফ