সার্চ কমিটি নিয়ে বিএনপি-আওয়ামী লীগ মুখোমুখি

শনিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সরকার জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করছে। অন্যদিকে বিএনপি জনগণের আস্থা হারিয়েছে বলে দাবি আওয়ামী লীগের। সার্চ কমিটি একটি ‘যোগ্য ও নিরপেক্ষ কমিশন’ গঠন করতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করে আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, বিএনপির কোনো দাবিতে জনতার রায় নেই।

নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের প্রশ্নে রাষ্ট্রপতির সংলাপ থেকে শুরু করে আইন গঠন ও পরবর্তীতে সার্চ কমিটির অনুসন্ধান প্রক্রিয়া। এর পুরোক্ষেত্রেই বিএনপি অংশ না নিয়ে দূরে থেকেছে। সমালোচনায় মুখর দেখা গেছে শীর্ষ নেতাদের।

সকালে রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবে ড. মোশাররফ হোসেনের লেখা স্মৃতিচারণমূলক একটি অ্যালবামের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, নির্বাচন কমিশন গঠনে সার্চ কমিটি করে জনগণের সঙ্গে প্রতারণার নীলনকশা করছে সরকার। নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠা না হলে সুষ্ঠু নির্বাচান কখনোই সম্ভব নয়— এ কথা জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারব্যবস্থার দাবি জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, নির্বাচন কমিশন গঠনে সার্চ কমিটি করে জনগণকে বোকা বানিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে আবারও একদলীয় শাসনব্যবস্থা কায়েম করতে চায় ক্ষমতাসীনরা। এদিকে পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগের ঐক্যবদ্ধ শক্তিকে হারানোর ক্ষমতা নেই কোনো রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের। এ ছাড়া আরেকটি অনুষ্ঠানে সার্চ কমিটির ইস্যুতে আজ শনিবার কথা বলেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, সার্চ কমিটি সবার কাছে গ্রহণযোগ্য একটি নির্বাচন কমিশন উপহার দেবে। বিএনপির সঙ্গে জনগণ নেই, তাই দাবি আদায়ে দলটির সাংগঠনিক শক্তিও নেই। গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে হলে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াগুলোতে না বলার সুযোগ নেই বলেও দাবি আওয়ামী লীগ নেতাদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post আওয়ামী লীগের উল্টো বলাই বিএনপির রাজনীতি : মায়া
Next post ক্ষমতার আস্ফালন দেখিয়ে বিজয়ী হওয়া যায় না: ওবায়দুল কাদের