ব্যবসায়ীর কাছে চাঁদা দাবি, জামায়াত নেতাসহ গ্রেফতার ২

সিলেটে ব্যবসায়ীর কাছে ১৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি, আড়াই লাখ টাকা ছিনতাই, গুলিবর্ষণ ও মারধরের মামলায় জামায়াত নেতাসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে তাদের গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মহানগর জামায়াতের সদস্য নগরীর বারুতখানার গোলাম নবীর ছেলে খোকন মিয়া ও লালবাজারের আল ফালাহ কমপ্লেক্সের বাসিন্দা হারুনুর রশিদের ছেলে হেলিম মিয়া।

বৃহস্পতিবার রাতে তাদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন লালদীঘির পাড়ের ব্যবসায়ী মো. হোসেনের ছেলে ইব্রাহিম মিয়া।

মামলায় খোকন ও হেলিম ছাড়াও আসামি করা হয়েছে লালদীঘির পাড়ের হারুনুর রশিদের ছেলে ইউনুস মিয়া, একই এলাকার কমর কমপ্লেক্সের বাসিন্দা সামছু মিয়ার ছেলে আলামিন ও আল ফালাহ কমপ্লেক্সের বাসিন্দা তাহের আলীর ছেলে আলমগীরসহ ৮-১০ জনকে।

বাদী এজাহারে দাবি করেন- আসামিরা একটি সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজ চক্র। তারা দীর্ঘদিন ধরে তার কাছে চাঁদা দাবি করে আসছেন। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ৮টার দিকে দোকান বন্ধ করার সময় আসামিরা দোকানে গিয়ে ১৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। টাকা না দেওয়ায় জোরপূর্বক আড়াই লাখ টাকা ছিনিয়ে নেন। এমনকি পিস্তল ঠেকিয়ে ভয় দেখান ও মারধর করেন। ১৫ লাখ টাকা না পেলে তারা প্রাণে মারারও হুমকি দেন বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই নিশু লাল দে জানানি, মামলার পরই দুই আসামিকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post ১ লাখ নয়, ২ লাখ সৈন্য জড়ো করেছে রাশিয়া
Next post দেশের এত উন্নয়নের পরও কেন মানুষ আ.লীগের বিপক্ষে ভোট দেবে