প্রবাসীর পুরুষাঙ্গ কেটে পালিয়েছে এক সন্তানের জননী

টাঙ্গাইলের সখিপুরে প্রবাসী খোকন মিয়া(৩৫) এর পুরুষাঙ্গ ধারালো অস্ত্র দিয়ে কেটে পালিয়ে গেছে এক সন্তানের জননী রুপা আক্তার(২৬)।

গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। ঘটনাটি ঘটেছে দাড়িয়াপুর নয়াপাড়া এলাকায় শুক্রবার(১১মার্চ ) ভোরে।

এলাকাবাসী ও আহতের স্বজনরা জানায়, প্রায় সাত বছর পূর্বে দাড়িয়াপুর উত্তরপাড়ার ইসমাইলের মেয়ে রুপার সাথে দাড়িয়াপুর নয়াপাড়ার সোনা মিয়ার ছেলে খোকনের সাথে বিয়ে হয়।

তাদের একটি ৪বছর বয়সী ছেলে শিশু সন্তান রয়েছে। খোকন মিয়া প্রায়২০দিন পূর্বে দেশে আসে। দেশে আসার পর থেকেই তাদের মধ্যে টাকা-পয়সার হিসাব নিয়ে ঝগড়া লেগে থাকতো।

টাকার হিসাব না দিতে পেরে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে পালিয়ে যেতে পারে রুপা। খোকনের চাচা খাজু জানায়,শুক্রবার ভোর ৪টার সময় খোকন বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করলে আশে পাশের লোকজন ঘরে প্রবেশ করে দেখে খোকনের পুরুষাঙ্গ কাটা এবং রুপা ঘরে নেই।

আহত খোকনের চাচী মর্জিনা জানায়,গুরুতর আহত খোকনকে উদ্ধার করে দ্রুত টাঙ্গািইল জেনারেল হাসপাতারে পাঠানো হয়েছে,অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

পালিয়ে যাওয়ার সময় রুপা স্বামী খোকনের পাসপোর্ট ,৮ ভরি স্বর্নালংকার ,কয়েক লাখ টাকা নিয়ে যায়। সখিপুর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। সখিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো.রেজাউল করিম বলেন,থানায় অভিযোগ পেয়েছি,মামলা প্রক্রিয়াধীন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post ভূ-রাজনৈতিক খেলোয়াড় তুরস্ক
Next post যুক্তরাষ্ট্রকে বাদ দিয়ে চীনা বিমান কিনতে যাচ্ছে আমিরাত