শেষ পর্যন্ত পারমাণবিক যুদ্ধেই জড়াতে যাচ্ছে পুতিন?

ইউক্রেনে চলমান রাশিয়ার ‘বিশেষ অভিযানের’ দুই সপ্তাহ পেরিয়ে গেছে। ক্ষয়ক্ষতির পরও পিছু হঠছে না কোনো পক্ষই। একের পর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞায় নাজেহাল রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা অব্যাহত রেখেছে। পালটা হামলা চালাচ্ছে ইউক্রেনও। এই অবস্থায় শেষ উপায় হিসেবে পুতিন শেষ পর্যন্ত পারমাণবিক যুদ্ধেই জড়াবেন কী না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

তবে এ ব্যাপারে নিজেদের অবস্থান জানিয়েছে দিয়েছে রাশিয়া। রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ এ ব্যাপারে বলেন, তিনি বিশ্বাস করেন না ইউক্রেনে সংঘাত পারমাণবিক যুদ্ধে রূপ নিতে পারে।

ইউক্রেন আগ্রাসন ঘোষণার পরই পশ্চিমা বিশ্ব রাশিয়ার ওপর একের পর এক নিষেধাজ্ঞা জারি করে যাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে রাশিয়ার অর্থনীতি ১৯৯১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর সবচেয়ে গুরুতর সংকটের মুখোমুখি হচ্ছে।

এই অবস্থায় গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন প্রতিরক্ষা বাহিনীকে পারমাণবিক অস্ত্র বিশেষ সতর্ক অবস্থায় রাখার নির্দেশ দেন। পুতিনের ওই নির্দেশ পারমাণকিব যুদ্ধের আশঙ্কাকে উসকে দিচ্ছে।

এ ব্যাপারে তুরস্কে ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবার সঙ্গে আলোচনা শেষে পারমাণবিক যুদ্ধ নিয়ে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে লাভরভ বলেন, আমি এটা বিশ্বাস করি না, আমি এটা বিশ্বাস করতে চাই-ও না।

লাভরভ ২০০৪ সাল থেকে পুতিনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। পশ্চিমারাই পারমাণবিক যুদ্ধ নিয়ে আলোচনা করে অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

উৎসঃ jugantor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post জাতীয় সরকারে থাকছে আওয়ামীলীগও!
Next post ইউক্রেন যুদ্ধ যুক্তরাষ্ট্রের যে ‘বন্ধুদের’ মুখোশ খুলে দিল