স্বামীকে তালাক দিয়ে স্বামীর বন্ধুকে বিয়ে

নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় স্বামীকে তালাক দিয়ে স্বামীর বন্ধুকে বিয়ে করেছেন এক গৃহবধূ।

মঙ্গলবার (৮ মার্চ) রাতে গোমনাতি ইউপি চেয়ারম্যান আহম্মেদ ফয়সাল শুভ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে একই দিন রাতে ভোগডাবুরী ও গোমনাতি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, মেম্বার ও স্থানীয় ব্যক্তিদের নিয়ে এক বৈঠকে তালাক ও বিয়ে সংঘটিত হয়। এ সময় স্থানীয়দের ডাকা সালিসি বৈঠকে স্বামীকে তালাক দিয়ে প্রেমিককে বিয়ে করেন ওই নারী।

বিয়ে করা নারী ভোগডাবুরী ইউনিয়নের চিলাহাটি গোসাইগঞ্জ গ্রামের বরকত আলীর ছেলে রবিউল ইসলামের স্ত্রী ছিলেন। বিয়ে করা বন্ধ হলেন, গোমনাতি ইউনিয়নের আনোয়ার হোসেনের ছেলে আরিফ।

জানা গেছে, রবিউল ইসলামের সঙ্গে ওই নারীর প্রায় ১০ বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে প্রায় ৪ বছরের একটি ছেলেসন্তান রয়েছে। রবিউল ঢাকায় শ্রমিকের কাজ করে। সেখানে রবিউলের সঙ্গে কাজ করেন আরিফ নামের এক ব্যক্তি।

আরিফ গোমনাতি ইউনিয়নের আনোয়ার হোসেনের ছেলে। গত ঈদের সময় বাড়িতে আসেন রবিউল। এ সময় তার সঙ্গে দেখা করতে আসেন আরিফ। এরপর থেকে রবিউলের স্ত্রীর সঙ্গে আরিফের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ বিষয়টি জেনে রবিউল তার স্ত্রীকে সতর্কও করেন।

এদিকে সোমবার (৭ মার্চ) রাতে রবিউল বাড়িতে না থাকার সুযোগ আরিফ ওই নারীর সঙ্গে দেখা করতে আসেন। এ সময় তারা একই ঘরে অবস্থান করেন। পরে আজ মঙ্গলবার ভোরে আরিফ হোসেন চুপিসারে চলে যান।

তবে আরিফকে চলে যেতে দেখেন রবিউলের বাবা-মা। পরে এলাকাবাসী বিষয়টি জানতে পেরে আরিফ গণপিটুনি দেন। পরে এ ঘটনায় সালিস হলে ওই নারী রবিউলকে তালাকে দেন এবং আরিফকে বিয়ে করেন।

গোমনাতি ইউপি চেয়ারম্যান আহম্মেদ ফয়সাল শুভ বলেন, আজ মঙ্গলবার (৮ মার্চ) দুই পক্ষের সম্মতি নিয়ে রবিউলের স্ত্রী রবিউলকে তালাক দিয়ে তার প্রেমিক আরিফকে বিয়ে করেন। ছেলে সন্তানটি রবিউলের কাছে থাকবে বলে সালিসে সিদ্ধান্ত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post স্ত্রীকে রেখে শ্যালকের বউ নিয়ে স্বামী উধাও
Next post পুতিনের নিয়ে বাবা ভেঙ্গার ভবিষ্যৎবাণী সত্যি হলো!