‘রাশিয়ার গ্যাস ছাড়া চলতে পারব না’, নিষেধাজ্ঞার প্রস্তাব প্রত্যাখান

রাশিয়াকে অর্থনৈতিকভাবে আরও চাপে ফেলতে রাশিয়ার তেল, গ্যাসসহ অন্যান্য জ্বালানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

ইউরোপের সবচেয়ে বড় জোট ইউরোপীয় ইউনিয়নও যুক্তরাষ্ট্রের পথে হাঁটতে চাইছে।

তবে রাশিয়ার তেল ও গ্যাসের ওপর নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বিভক্তি দেখা দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নে। কারণ বেশ কয়েকটি দেশ এই নিষেধাজ্ঞার বিরোধিতা করেছে।

এর মধ্যে হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর ওরবান প্রকাশ্যে জানিয়েছেন, তার দেশ রাশিয়ার জ্বালানির ওপর কোনো নিষেধাজ্ঞায় থাকবে না।

তিনি সরাসরি বলেছেন, রাশিয়ার গ্যাস ছাড়া চলতে পারব না আমরা।

ভিসেগার্ড বৈঠকে যুক্তরাজ্য, পোল্যান্ড, চেক রিপাবলিক ও স্লোভাকিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে বৈঠক শেষে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন ভিক্টর ওরবান।

এ ব্যাপারে বিবৃতিতে হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর বলেন, হাঙ্গেরি রাশিয়ার ইউক্রেনে হামলার নিন্দা জানায়। কিন্তু আমরা রাশিয়ার জ্বালানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিতে পারব না। ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের মূল্য হাঙ্গেরির জনগণের ওপর চাপিয়ে দেওয়া যাবে না।

তিনি আরও জানিয়েছেন, রাশিয়ার গ্যাসের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিলে হাঙ্গেরিতে এর মারাত্বক প্রভাব পড়বে। হাঙ্গেরির ৯০ ভাগ মানুষের ঘর উষ্ণ রাখে রাশিয়ান গ্যাস। তাদের গ্যাস ও তেল ছাড়া হাঙ্গেরি অচল হয়ে যাবে।

এদিকে রাশিয়ার ওপর ইতিমধ্যেই অনেকগুলো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। আর এটির সদস্য হিসেবে এর প্রভাব পড়েছে হাঙ্গেরিতেও। তাদের মূদ্রার মান গত কয়েকদিনে রেকর্ড পরিমাণ কমে গেছে।

সূত্র: আল জাজিরা, আন্দুলো এজেন্সি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র!
Next post যুক্তরাষ্ট্রের পর জার্মানিও হতাশ করল ইউক্রেনকে