বিএনপি কবে যেন ফখরুলকেও অস্বীকার করে: তথ্যমন্ত্রী

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে সবাই বিএনপির উপদেষ্টা হিসেবেই জানে উল্লেখ করে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, এখন তারা ডা. জাফরুল্লাহকে অস্বীকার করছে। কোনো এক সময় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকেও অস্বীকার করতে পারে।

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক

বুধবার (২ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর কাকরাইলে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট-পিআইবি’তে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন বিষয়ে বিএনপি’র বিভিন্ন মন্তব্য নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি যেহেতু জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েছে, সেজন্য তারা নির্বাচনকে ভয় পায় এবং সে কারণেই নির্বাচন কমিশন নিয়ে তারা বিভিন্ন প্রশ্ন তুলছে। জনগণের সাথে তাদের কোনো সম্পর্ক নেই, তারা পেট্রোলবোমা নিক্ষেপ করে, ধ্বংসাত্মক রাজনীতি করে জনগণ থেকে দূরে সরে গেছে। এছাড়া তাদের নেত্রী খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমান আদালতে শাস্তিপ্রাপ্ত আসামী হওয়ায় আইন অনুযায়ী নির্বাচন করতে পারবেন না। তাই তারা আসলে নির্বাচন করতে চায় না। তারা যে নির্বাচনকালীন সরকারের কথা বলে, এগুলো আসলে বাহানামাত্র।

তিনি আরো বলেন, ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিএনপি’র বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করতেন। তাকে বিএনপির উপদেষ্টা হিসেবে সবাই জানে। ডা. জাফরুল্লাহর তালিকা থেকে সিইসি নিযুক্ত হয়েছেন এজন্য তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেছেন এবং সিইসির ওপর আস্থা রাখার জন্য বিএনপিসহ সব দলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। এখন বিএনপি ডা. জাফরুল্লাহকে অস্বীকার করছে।

‘বিএনপি কখন কাকে অস্বীকার করে তার ঠিক নাই। এক সময় কোনো কারণে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরগেও বিএনপি অস্বীকার করতে পারে’।-যোগ করেন ড. হাছান মাহমুদ।

এনবিএ সভাপতি মুমতাহিনা হাসনাত রীতুর সভাপতিত্বে পিআইবি’র মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ, বিশিষ্ট সাংবাদিক সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা ও মানষ ঘোষ বিশেষ অতিথি হিসেবে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন। উপস্থাপক জাফর সাদিক মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন। এসময় সংগঠন থেকে দেয়া পরিচয়পত্র সদস্যদের হাতে তুলে দেন তথ্যমন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post লক্ষ্মীপুর ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদককে অবাঞ্ছিত ঘোষণা
Next post হুদা কমিশনও প্রথম দুই দিন জিয়াউর রহমানের সুনাম করে বিএনপিকে উৎসাহিত করার চেষ্টা করেছে