শেখ হাসিনার অধীনে আর নির্বাচন বাংলাদেশের মাটিতে হবে না।

বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান বলেছেন, আরেকটি আন্দোলনের ডাক আসবে, সেই আন্দোলনের পর বাংলাদেশের জনগণ ভোট দিয়ে তার প্রত্যাশা ও পছন্দ অনুযায়ী নেতা নির্বাচন করবে। সেই পছন্দ অনুযায়ী বাংলাদেশে সরকার গঠন হবে। তবে নাটকের নির্বাচনের মাধ্যমে না। শেখ হাসিনার অধীনে আর নির্বাচন বাংলাদেশের মাটিতে হবে না।’

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে বুধবার (২ মার্চ) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ নগরীর চাষাড়ায় বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি।

আমান উল্লাহ আমান বলেন, জনগণের ভোটার অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্যে আগামী দিনে যে আন্দোলনের কর্মসূচি আসবে। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য, সেখানে প্রয়োজনে আমরা শহীদ হবো। তারপরেও গণতন্ত্র পুনরায় উদ্ধার করবো।

আমান উল্লাহ আমান বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন ১০ টাকা কেজি চাল খাওয়াবেন, এখন সেই চাল ৮০ টাকা কেজি। বলেছিলেন ঘরে ঘরে চাকরি দিবেন, এখন কোথায় সেই চাকরি। অর্থাৎ যা বলেন, তা করেন না। উল্টো বর্তমানে চালের দাম বাড়িয়েছে, তেলের দাম বাড়িয়েছে, গ্যাসের দাম বাড়িয়েছে, বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে, এমনকি পানির দামও বাড়িয়েছে।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জবাসী অত্যন্ত সচেতন। আপনারা সব সময়ই যেকোনো পরিস্থিতিতে আন্দোলন-সংগ্রামে অবদান রেখেছেন।

আমান বলেন, ‘আপনারা ২০১৪ সালে ভোট দিতে পারেন নাই। ২০১৪ সালে ৩০ তারিখে দিনের ভোট রাতে হয়েছে। আমি বলতে চাইছি, এই সরকার জনগণের সরকার নয়, এই সরকার অবৈধ সরকার। তাদের কাছে জনগণের জানমাল নিরাপদ নয়। এই সরকার শুধুমাত্র প্রশাসন দিয়ে বেঁচে আছে। তাদের পায়ের নিচে মাটি নাই। বিশ্বের শক্তিধর দেশ আমেরিকার মতো রাষ্ট্র বর্তমান ও আগের সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। তারমানে এই সরকারকে আর সমর্থন দিবে না। দু’দিন পর বাংলাদেশের জনগণও এই সরকারের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিবে। তারা আর ক্ষমতায় থাকতে পারবে না।’

আক্ষেপ করে আমান উল্লাহ আমান বলেন, আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড কমিশনার, চেয়ারম্যান-মেম্বার বিদেশে চিকিৎসা করায়, আর বেগম খালেদা জিয়া তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী হয়েও বিদেশে চিকিৎসার জন্য যেতে পারেন না। কারণ খালেদা জিয়াকে সরকার ভয় পায়। জিয়াউর রহমানকে ভয় পেতো, আজকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক জিয়াকে ভয় পায়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবির সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপির ঢাকা বিভাগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, বিএনপির ঢাকা বিভাগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বেনজির আহমেদ টিটু, জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদের সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ, সোনারগাঁ থানা বিএনপির আহ্বায়ক এম এ মান্নান, মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খান ও জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post সয়াবিন-পামঅয়েল খোলা বিক্রি করা যাবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী
Next post এ দেশের জনগণ যেকোনো মূল্যে তাদের পবিত্র ভোটাধিকার রক্ষা করবে।