পরমাণু বোমা প্রতিরোধ বাংকারে পুতিনের পরিবার!

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তার পরিবারকে গোপন স্থানে সরিয়ে নিয়েছেন বলে দাবি করেছেন দেশটির এক অধ্যাপক। তিনি বলেছেন, ভূগর্ভস্থ এই বাংকারে শহরের মতোই সব সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। সাইবেরিয়ার আলতাই পর্বতমালায় এর অবস্থান।

পারমাণবিক যুদ্ধের সময় ব্যবহারের জন্য মাটির নিচে বিলাসবহুল এই হাইটেক বাংকারের নকশা করা হয় বলে দাবি করেছেন অধ্যাপক ভ্যালেরি সলোভে।

এক ভিডিও বার্তায় ভ্যালেরি সলোভে বলেন, ‘সপ্তাহান্তে প্রেসিডেন্ট পুতিন তার পরিবারের সদস্যদের বিশেষ বাংকারে সরিয়ে ফেলেছেন। সেটি আলতাই পর্বতমালায় অবস্থিত।

‘এটিকে ঠিক বাংকার বলা যাবে না। আসলে এটি আন্ডারগ্রাউন্ড শহর, সেখানে অত্যাধুনিক সব প্রযুক্তি আছে।’

সম্ভাব্য পরমাণু যুদ্ধের ইঙ্গিত দিয়ে সলোভে আরও বলেন, ‘আশা করি এ ঘটনা থেকে আপনারা কিছুর আভাস পেয়েছেন। কেন পুতিন তার পরিবারকে বাংকারে পাঠাবেন?’

ক্রেমলিনের সঙ্গে নিজের যোগাযোগ রয়েছে দাবি করে সলোভে বলেন, ‘মঙ্গোলিয়া, চীন এবং সাইবেরিয়ার সীমান্তবর্তী আলতাই প্রজাতন্ত্রের ওংগুডেস্কি জেলায় এক দশক আগে বাংকারটি নির্মাণ হয়।

৬১ বছরের সলোভে মস্কো স্টেট ইনস্টিটিউট অফ ইন্টারন্যাশনাল রিলেশনসের (এমজিআইএমও) সাবেক অধ্যাপক। একই সঙ্গে তিনি ইতিহাসবিদ ও রাজনীতি বিশেষজ্ঞ।

এর আগে নিজের টেলিগ্রাম পোস্টে সলোভে লিখেছিলেন, রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন শারীরিক ও মানসিক রোগে ভুগছেন। সুস্থতার আশায় রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোয়গুর সঙ্গে আধ্যাত্মিক সাধনাতেও তিনি অংশ নেন।

সলোভের এসব দাবিকে কন্সপিরেসি থিওরি (ষড়যন্ত্র তত্ত্ব) বলছেন অনেক রুশ নাগরিক। তবে বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়েছে রুশ কর্তৃপক্ষ।

গত সপ্তাহে এই অধ্যাপককে ৭ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে কর্তৃপক্ষ। সলোভের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে জব্দ করা হয় কিছু ইলেকট্রনিক ডিভাইস। পরে ছেড়ে দেয়া হলেও তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

কিছু পর্যবেক্ষক অবশ্য সলোভের দাবিকে উড়িয়ে দিচ্ছেন না। তারা বলছেন, যে জায়গার কথা বলা হয়েছে, সেখানে বায়ু চলাচলের একাধিক পয়েন্ট রয়েছে। এ ছাড়া অত্যাধুনিক ১১০ কিলোভোল্টের একটি সাব-স্টেশনও রয়েছে, যা ছোট কোনো শহরকে শক্তির জোগান দিতে সক্ষম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post তারেকের অতিলোভে টাটার ৩ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ বঞ্চিত হয় বাংলাদেশ’ বললেন জয়
Next post বিএনপি নির্বাচন ব্যবস্থাকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে: দীপু মনি