ক্ষুধার্ত মানুষের মিছিলে উন্নয়নের রাজনীতি গড়াগড়ি খাচ্ছে

টিসিবির ট্রাকের পেছনে ক্ষুধার্ত মানুষের মিছিলে উন্নয়নের রাজনীতি গড়াগড়ি খাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির নেতৃবৃন্দ। তারা বলেছেন, ক্ষমতায় থাকতে মানুষের ভোটের দরকার না হওয়ায় সরকার দেশের মানুষকে যেন আল্লাহর ওয়াস্তে ছেড়ে দিয়েছে। প্রতিটি ভোগ্যপণ্য আর সেবার দাম বাড়িয়ে মানুষের জীবন-জীবিকাকে অতিষ্ঠ করে তুলেছে। জীবন-জীবিকা রক্ষা এবং অধিকার ও ইনসাফ প্রতিষ্ঠায় রাজপথে গণসংগ্রাম-গণপ্রতিরোধ জোরদার করার ডাক দেন তারা।

আজ মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, বাজারের আগুন রাজপথে ছড়িয়ে পড়লে সরকার গদি রক্ষা করতে পারবে না। বাজারের আগুন আর মানুষের মনের আগুন এক হয়ে বিস্ফোরিত হলে সরকার দমন-নিপীড়ন চালিয়েও শেষ রক্ষা করতে পারবে না।

তিনি বলেন, দেশের সমস্যা খাদ্যসংকট নয়, সমস্যা মুনাফাখোর বাজার সিন্ডিকেটের চূড়ান্ত স্বেচ্ছাচারিতা। সরকারের সাথে অশুভ যোগসাজশে দেশের মানুষকে পুরোপুরি জিম্মি করে ফেলেছে। সরকারের কথিত এই উন্নয়ন নতুন করে সাড়ে তিন কোটি মানুষকে দরিদ্র করেছে, দেশে বেকারের মিছিল কেবল দীর্ঘ করছে, স্বল্প আয়ের কোটি কোটি মানুষ খাদ্যগ্রহণ কমিয়ে দিয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা বহ্নিশিখা জামালী বলেন, ঘরে বসে হা-হুতাশ করে বাঁচা যাবে না। গণ-আন্দোলনের পথে দুর্নীতিবাজ, দুর্বৃত্ত ও সিন্ডিকেটের পাহারাদার গণবিরোধী সরকারকে বিদায় দিতে সকল প্রগতিশীল, গণতান্ত্রিক ও দেশপ্রেমিক শক্তিকে এগিয়ে আসতে হবে।

সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা আকবর খান, আনছার আলী দুলাল, রাশিদা বেগম, ফিরোজ আহমেদ, সিকদার হারুন রশীদ মাহমুদ, সাইফুল ইসলাম, অরবিন্দু বেপারি বিন্দু, স্নিগ্ধা সুলতানা ইভা, কামরুজ্জামান ফিরোজ প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল তোপখানা রোড, পুরানা পল্টন ও বিজয়নগর প্রদক্ষিণ করে সেগুনবাগিচায় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির নেপথ্যে আ.লীগের সিন্ডিকেট: বিএনপি
Next post জিআর কর্মসূচির চাল আত্মসাৎ, আসামিদের আত্মসমর্পণের নির্দেশ