দেশে অনেকের মাসিক আয় ৫ হাজার, আবার অনেকের ৫ কোটি: মন্ত্রী

পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান মনে করেন, দেশে মাথাপিছু আয় বাড়লে বাল্যবিয়ে কমবে। মন্ত্রীর ভাষ্য, নানা কারণে বাল্যবিয়ে হয়। বাবা হয়ত মেয়েকে খেতে দিতে পারেন না। তার আয় কম। তখন বালিকা কন্যার বিয়ে দিয়ে তিনি দায় মুক্তি পেতে চান। তাই আমাদের আয় বাড়লে বাল্যবিয়ে কমবে।

মঙ্গলবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে সবাইকে সোচ্চার হওয়ার প্রতি জোর দিয়ে মন্ত্রী মান্নান বলেন, পৃথিবীর অনেক দেশেই বাল্যবিয়ে হয়েছে। অনেক দেশ এটা কমিয়ে এনেছে। এখনো আমাদের শহর ও গ্রামে চুপিসারে বাল্যবিয়ে হচ্ছে। এটার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে হবে। অনেক প্রতিবাদ দেখি, শিশু নিজেই রুখে দাঁড়ায়। আমি তাদের স্যালুট জানাই। মাঠ প্রশাসনও শিশু বিবাহ রুখতে কাজ করছে।

এ সময় দেশের নাগরিকদের গড় আয় নিয়ে তিনি বলেন, আমাদের সমাজে অনেকে আছেন যাদের মাসিক গড় আয় ৫ হাজার টাকা। আবার অনেকে আছেন যাদের গড় আয় ৫ কোটি টাকা।

‘ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা ও শিশু সুরক্ষা’ শীর্ষক ২০তম চাইল্ড পার্লামেন্ট অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশগ্রহণ করে দেশের ১৫টি জেলার ১৬টি সুবিধাবঞ্চিত ও প্রান্তিক অঞ্চলের শিশুরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post ওসিসহ ৫ পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা
Next post সরকারের উন্নয়ন টিসিবির ট্রাকের পেছনে গড়াগড়ি খায়