জিআর কর্মসূচির চাল আত্মসাৎ, আসামিদের আত্মসমর্পণের নির্দেশ

চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে ভুয়া অনুষ্ঠান দেখিয়ে খাদ্য ও অর্থ সহায়তা (জিআর) কর্মসূচির ৬০০ মেট্রিক টন চাল আত্মসাতের মামলায় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাসহ দুই আসামিকে জামিন দেননি হাইকোর্ট। চার সপ্তাহের মধ্যে তাদের জেলার দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মামলায় আসামিরা হলেন দামুড়হুদা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) আশরাফ হোসেন এবং একই কার্যালয়ের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক সাইফুর রহমান মালিক। তাদের আগাম জামিন আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আব্দুর রউফ। আর দুর্নীতি দমন কমিশন–দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী কামরুন্নেসা রত্না। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মানিক কালের কণ্ঠকে বলেন, আগামী ১৫ মার্চ তদন্ত প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে মামলার পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য রয়েছে চুয়াডাঙ্গা বিশেষ আদালতে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালে জীবননগরে দায়িত্ব পালনকালে পিআইও আশরাফ হোসেন ও সাইফুর রহমান যোগসাজশ করে ভুয়া মাস্টাররোল ও বিল ভাউচার দেখিয়ে জিআর প্রকল্পের ৬০০ মেট্রিক টন চাল আত্মসাৎ করেন। তদন্ত করে দুদক অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেলে গত ৮ ফেব্রুয়ারি দুদকের উপপরিচালক (মানি লন্ডারিং) আবদুল মাজেদ বাদী হয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলা ও দায়রা জজ (বিশেষ জজ) আদালতে মামলা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post ক্ষুধার্ত মানুষের মিছিলে উন্নয়নের রাজনীতি গড়াগড়ি খাচ্ছে
Next post জাফরুল্লাহর সঙ্গে বিএনপির কোনো সম্পর্ক নেই: ফখরুল