পুতিনের সেনা মোতায়েনের বিরোধিতায় এরদোগান

পূর্ব ইউক্রেনের দুই বিচ্ছিন্ন অঞ্চলকে স্বাধীন প্রজাতন্ত্র ঘোষণা দিয়ে সেখানে সেনা মোতায়েনের নির্দেশ দিয়েছিলেন পুতিন। রাশিয়ার এমন সিদ্ধান্তে ইউক্রেনের পাশে থাকারই ঘোষণা দিয়েছে তুরস্ক।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কিকে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেন, তুরস্ক ইউক্রেনের ভৌগোলিক অখণ্ডতার বিরুদ্ধে নেওয়া যে কোনো সিদ্ধান্তের বিরোধী।

পূর্ব ইউক্রেনের দুটি অঞ্চলকে রাশিয়া স্বাধীন বলে স্বীকৃতি দেওয়ার পর এরদোগান এই মন্তব্য করেছেন বলে বিবিসি জানিয়েছে।

জেলেনস্কির সঙ্গে ফোনালাপে এরদোগান বলেন, তুরস্ক রাশিয়ার এই সিদ্ধান্তকে অগ্রহণযোগ্য মনে করে এবং সংকট সমাধানে ‘আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কূটনীতির সবরকম পথ ব্যবহারের’ আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি পূর্ব ইউক্রেনের দুই বিচ্ছিন্ন অঞ্চলকে স্বাধীন প্রজাতন্ত্র ঘোষণা দিয়ে সেখানে সেনা মোতায়েনের নির্দেশ দিয়েছিলেন পুতিন। রুশ সংসদের উচ্চ কক্ষ ‘ফেডারেল কাউন্সিল; পুতিনের এ আদেশে সম্মতি দিয়েছে। এর মাধ্যমে দেশের বাইরে সশস্ত্র বাহিনী ব্যবহারের অনুমতি পেলেন প্রেসিডেন্ট পুতিন।

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ তাসের খবরে বলা হয়েছে, দেশের বাইরে সেনা মোতায়েন নিয়ে একটি রেজ্যুলেশন আহ্বান করা হয়। এটি সর্বসম্মতভাবে পাস হয়। ১৫৩ সিনেট সদস্য এতে সম্মতি প্রকাশ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post মাতৃভাষা দিবসে হিন্দি গান বাজানো বন্ধ হোক
Next post আ.লীগ সরকারের দুঃশাসন থেকে মানুষ মুক্তি চায়: বিএনপি