মোদির সঙ্গে টেলিভিশন বিতর্ক চান ইমরান

প্রতিবেশী দেশ ভারতের সঙ্গে জিইয়ে থাকা নানা সমস্যার সুরাহায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে টেলিভিশন বিতর্কে বসতে চান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। রাশিয়ান টেলিভিশন রাশিয়া টুডেকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

পারমাণবিক ক্ষমতাধর প্রতিবেশী দেশ ভারত ও পাকিস্তান ৭৫ বছর আগে ব্রিটিশদের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভ করে। এর পর থেকেই দুই দেশের মধ্যে বৈরিতা চলে আসছে। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ অঞ্চল কাশ্মীর নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের বিরোধ চরমে। দুটি দেশই কাশ্মীরকে নিজেদের অংশ বলে দাবি করে আসছে।

সাক্ষাৎকারে ইমরান খান বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বিতর্ক হলে আমি উপভোগ করব।’ দুই দেশের মধ্যে বিতর্কের মাধ্যমে উপমহাদেশের ১৭০ কোটি মানুষের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করা সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

তবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা সাড়া দেয়নি।

ইমরান খান বলেন, তাঁর সরকার সব দেশের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক স্থাপনের নীতিতে বিশ্বাসী। কিন্তু ভারত শত্রুতা পোষণ করায় দিন দিন প্রতিবেশী দেশটির সঙ্গে ব্যবসা–বাণিজ্য কমে যাচ্ছে।

গতকাল পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর বাণিজ্য উপদেষ্টা রাজ্জাক দাউদ সাংবাদিকদের বলেছিলেন, তিনি ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক স্থাপনে সহযোগিতা করেছেন। এর সুফল ভোগ করবে দুটি দেশই। এর পরদিনই ইমরান খান এসব কথা বললেন।

পাকিস্তানের প্রধামন্ত্রী আরও বলেন, সম্প্রতি পাকিস্তানের আঞ্চলিক বাণিজ্য কমে যাচ্ছে। তিনি বলেন, দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রতিবেশী রাষ্ট্র ইরানের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা চলছে। অন্যদিকে কয়েক দশক ধরে চলা যুদ্ধের কারণে পার্শ্ববর্তী দেশ আফগানিস্তানেও ব্যবসা-বাণিজ্যে তেমন একটা সুবিধা করতে পারছে না পাকিস্তান।

তবে প্রতিবেশী দেশ চীনের সঙ্গে পাকিস্তানের অর্থনৈতিক সম্পর্ক খুবই ভালো। বেল্ট অ্যান্ড রোড উদ্যোগের আওতায় পাকিস্তানের বিভিন্ন অবকাঠামো প্রকল্পে ইতিমধ্যে কয়েক শ কোটি ডলার বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে চীন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post রাশিয়ার সেনারা ‘শান্তিরক্ষী নয়’: জাতিসঙ্ঘ
Next post পুতিনের সেনা মোতায়েনের বিরোধিতায় এরদোগান