চেয়ারম্যান-মেয়রসহ আ.লীগের ১০ নেতার একযোগে পদত্যাগ

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট সোহরাব উদ্দিনের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও পৌর মেয়রসহ এ কমিটির ১০ প্রভাবশালী সদস্য পদত্যাগ করেছেন।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে পাকুন্দিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালের সামনে এক সংবাদ সম্মেলনে তারা একযোগে পদত্যাগের ঘোষণা দেন।

পদত্যাগকারী নেতারা হচ্ছেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সিনিয়র যুগ্ম-আহবায়ক বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম রেনু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হুমায়ুন কবির, জেলা শ্রমিক লীগের উপদেষ্টা আতাউল্লাহ সিদ্দিক মাসুদ, পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম আকন্দ, পাটুয়াভাঙ্গা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সাহাব উদ্দিন, নারান্দী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. শফিকুল ইসলাম, সুখিয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মো. আবদুল হামিদ টিটু, চেয়ারম্যান চন্ডিপাশা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মো. শামছু উদ্দিন, চরফরাদী ইউনিয়নে সাবেক সভাপতি শাহাব উদ্দিন, বাহাদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আওয়ামী লীগ নেতা সাহাব উদ্দিন।

এ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মেজবাহ উদ্দিন, জেলা শ্রমিক লীগের উপদেষ্টা আতাউল্লাহ সিদ্দিক মাসুদ, পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম আকন্দ ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম রেনু প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন, এ কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট সোহরাব উদ্দিন অগণতান্ত্রিক পন্থায় মনোনীত হয়েছেন। বর্তমান এমপিকে পর্যন্ত এ কমিটি গঠনের কথা জানানো হয়নি। এ ছাড়া এ কমিটিতে জামায়াত, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির লোকজনকেও সদস্য করা হয়েছে। এ ছাড়া এ কমিটির কোনো কার্যক্রম আহবায়ক চালাতে পারেননি।

তারা অভিযোগ করেন, বিগত পৌরসভা এবং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনেও এ আহবায়ক নীরব ভূমিকা পালন করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট সোহরাব উদ্দিন বলেন, যারা পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন তারা সবাই বর্তমান সরকার দলীয় এমপি নূর মোহাম্মদের সমর্থক। দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতেই তারা পদত্যাগের নাটক সাজিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ২২ জুলাই জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির এক সভায় সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট সোহরাব উদ্দিনকে আহবায়ক করে এক সদস্যের পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করা হয়। পরবর্তীতে ৯ সেপ্টেম্বর ৬৭ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটির অনুমোদন দেয় জেলা কমিটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post কেন এতো মরিয়া নিপুণ?
Next post ইসরাইলের সুপ্রিম কোর্টে বসলেন প্রথম স্থায়ী মুসলিম বিচারপতি