রাশিয়ার স্বীকৃতির পরপরই ডোনেটস্কের রাস্তায় ট্যাংক!

আমেরিকা, ব্রিটেনসহ পশ্চিমা দেশগুলো বারবার হুঁশিয়ার করেছিল রাশিয়ার বিরুদ্ধে। তবে এসব হুঁশিয়ারিকে পাত্তা না দিয়ে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত দু’টি অঞ্চলকে স্বাধীনতার স্বীকৃতি দিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সেগুলো হল- ডোনেটস্ক এবং লুহানস্ক। স্থানীয় সময় সোমবার রাতে অঞ্চল দুটির স্বাধীনতার স্বীকৃতি সংক্রান্ত ডিক্রিতে স্বাক্ষর করেন তিনি।

সোমবার স্বীকৃতির পরপরই ডোনেটস্কের রাস্তায় দেখা মিলল ট্যাংকের।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের এক সাংবাদিক দাবি করেন, তিনি অন্তত সাতটি ট্যাংক দেখেছেন ডোনেটস্কে। যদিও এই ট্যাংক কোন দেশের বা কোনপক্ষের, তা জানা যায়নি।

রয়টার্সের রিপোর্ট অনুযায়ী, এই ট্যাঙ্কগুলোর গায়ে কোনও লোগো ছিল না যা থেকে বোঝা যাবে যে এগুলো ইউক্রেন সেনা বাহিনীর নাকি রাশিয়ার নাকি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের।

এদিকে সোমবারই ক্রেমলিনে বসে ডোনেটস্কে এবং লুহানস্কের ‘বিদ্রোহী’ নেতাদের সঙ্গে পারস্পরিক সহযোগিতা এবং বন্ধুত্বের চুক্তি স্বাক্ষর করছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট। পুতিন অভিযোগ করেন, পূর্ব ইউক্রেনে অভিযান চালানোর চেষ্টা করছে ইউক্রেন। সেই পরিস্থিতিতে অবিলম্বে কিয়েভকে মস্কোপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপ বন্ধ করতে বলেন পুতিন। পরোক্ষভাবে তিনি যুদ্ধের হুঁশিয়ারিও দেন। সূত্র: রয়টার্স

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous post বিএনপির জন্য আ’লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের ৪০ মিনিট অপেক্ষা!
Next post পূর্ব ইউক্রেনে সেনা পাঠানোর নির্দেশ পুতিনের