‘নেভার গিভ আপ’

‘আজকে শিশুরা এখানে আছে। ওরা প্রতিমূহুর্তে ভাবে তাদের বাবা ফিরে আসবে। কিন্তু, আসে না। মা ভাবেন যে, এই বোধহয় ছেলে দরজা নক করলো। স্ত্রী অপেক্ষা করে থাকে কখন তার প্রিয় মানুষটা পাশে আসবে’।

গুম হওয়া পরিবারের সদস্যদের ছোট ছোট সন্তানদের দিকে তাকিয়ে আবেগঘণ কন্ঠে কথাগুলো বলেন বিএনপি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিগত দিনগুলোতে গুম, হত্যা, পঙ্গু হওয়া নেতা-কর্মীদের পরিবারের সদস্যদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

মঙ্গলবার দুপুরে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে ‘বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী হেল্প সেল’ এর উদ্যোগে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এসময় গুম হওয়া ১০ পরিবারের সদস্যদের হাতে শিক্ষা বৃত্তি হিসেবে আর্থিক অনুদান দেয়া হয়।

ফখরুল বলেন, দেশে অসহনীয় দম বন্ধ করা একটা পরিবেশ বিরাজ করছে। এই সমাজ কিভাবে এই ধরনের একটা পরিস্থিতি সহ্য করছে-এটাও চিন্তার ব্যাপার।

এ্ অবস্থা থেকে উত্তরণে ‘সকলকে উঠে দাঁড়ানো’র আহবান জানান বিএনপি মহাসচিব।

‘হত্যার মহাউৎসব চলছে’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আওয়ামী লীগ জোর করে ক্ষমতা দখল করে আছে। তারা যখন বক্তৃতা যখন করেন, মনে হয় যেন দেশে কিছুই হয়নি, চমৎকার পরিবেশ আছে, মানুষ খুব ভালো আছে। অথচ প্রতিদিন পত্রিকায় দেখবেন হত্যার মহাউৎসব চলছে। আজকে একটা মারাত্মক খবর দেখলাম মহাসড়কে মানুষের শরীরের অংশ ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে।

ফখরুল আরো বলেন, তিন/চার বছরের শিশুকে পর্যন্ত হত্যা করা হচ্ছে। হত্যা, শ্লীলতাহানি, ধর্ষণ যেন একটা সাধারণ ব্যাপার হয়ে গেছে। মানুষ এখন আর কথা বলে না, কথা বলার সুযোগ নেই। এটাই চেয়েছিলো ওরা (সরকার)।

‘মিডিয়ার সেন্সরশিপ’

ফখরুল বলেন, আজকে সব জায়গায় ভয়। এই যে সাংবাদিক ভাইয়েরা যারা আজকে এখানে খবর নিচ্ছেন, ছবি তুলেছেন তারা নিজেরাই সেন্সরশিপ আরোপ করছেন। তাদের ম্যানেজমেন্ট নিজেরাই এটা করছেন।

একদিকে সরকার সেন্সরশিপ আরোপ করছে, অন্যদিকে তারা(মিডিয়া) নিজেরাও সেন্সর করেন-এটা দেয়া যাবেন না, ওটা দেয়া ‍যাবে না। এই খবর ছাপানো যাবে না।

আজকে এই যে খবর নিতে আসছেন আপনারা। দেখা যাবে যে, এক কোনায় এইটুকু যাবে, এটাকে গুরুত্ব দেবে না।

ইভিএমের বিরোধিতা

ইভিএমের বিরোধিতা করে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা আগেও এর বিরোধিতা করেছি। আমরা বলেছি যে, ইভিএম দিয়ে কখনোই মানুষের রায়ের প্রতিফলন হবে না। আমরা এখনো সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এর বিরোধিতা করছি।

তারপরও বলি, হতাশ হবেন না, ছেড়ে দেবেন না। নেভার গিভ আপ। যত কষ্ট আসুক, যত যন্ত্রণা আসুক, যত অত্যাচার লাঞ্ছনা আসুক এদেশের মানুষ বার বার উঠে দাঁড়িয়েছে, তরুণরা উঠে দাঁড়িয়েছে, দাঁড়াবে, দাঁড়াচ্ছে। সব জায়গায় প্রতিরোধ হচ্ছে, প্রতিরোধ হবে।

সংগঠনটির সভাপতি আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য এনামুল হক চৌধুরী, সাবেক ছাত্র নেতা নাজিম উদ্দিন আলম, কামরুজ্জামান রতন, হাবিব উন নবী খান সোহেল, শফিউল বারী বাবু, মামুন হাসান, ছাত্রদলের ফজলুর রহমান খোকন, হেল্প সেলের নাসির উদ্দিন শাওন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এমএইচ/এএসটি

Author: shafah

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *