চসিক নির্বাচন: ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে বিএনপির প্রার্থী ঘোষণা

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থী ঘোষণা করেছে বিএনপি। রোববার রাতে এ তালিকা প্রকাশ করা হয়। এদিকে প্রার্থী মনোনয়ন নিয়ে দলে শুরু হয়েছে বিদ্রোহ। মনোনয়নবঞ্চিতদের কেউ কেউ স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার চিন্তা-ভাবনা করছেন।

দলও ছাড়ছেন কেউ কেউ। প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পরদিন ৩শ’ নেতাকর্মী নিয়ে পদত্যাগ করেছেন কাউন্সিলর পদে মনোনয়নবঞ্চিত যুবদল নেতা এমদাদুল হক বাদশা। তিনি নগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক। সোমবার বিকালে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি পদত্যাগের কথা জানান।

কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন পেলেন যারা : ৪১টি সাধারণ ওয়ার্ড এবং ১৮টি সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডসহ ৫৫টি ওয়ার্ডে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। রেবাবার রাত ১১টায় নগর বিএনপির পক্ষ থেকে এ তালিকা প্রকাশ করা হয়।

তালিকা অনুযায়ী দলীয় মনোনয়নপ্রাপ্তরা হলেন- ১ নম্বর দক্ষিণ পাহাড়তলী ওয়ার্ডে সিরাজুল ইসলাম রাসেদ, ২ নম্বর জালালাবাদ ওয়ার্ডে মো. ইয়াকুব চৌধুরী, ৩ নম্বর পাঁচলাইশ ওয়ার্ডে মো. ইলিয়াছ, ৪ নম্বর চান্দগাঁও ওয়ার্ডে মাহাবুবুল আলম, ৫ নম্বর মোহরা ওয়ার্ডে মো. আজম, ৬ নম্বর পূর্ব ষোলশহরে হাসান লিটন, ৭ নম্বর পশ্চিম ষোলশহরে ইসকান্দর মির্জা, ৮ নম্বর শুলকবহরে হাসান চৌধুরী, ৯ নম্বর উত্তর পাহাড়তলীতে আবদুস সাত্তার সেলিম, ১০ নম্বর উত্তর কাট্টলীতে রফিক উদ্দিন চৌধুরী, ১১ নম্বর দক্ষিণ কাট্টলীতে সোহরাব হোসেন চৌধুরী, ১২ নম্বর সরাইপাড়ায় শামসুল আলম, ১৩ নম্বর পাহাড়তলী ওয়ার্ডে জাহাঙ্গীর আলম দুলাল, ১৪ নম্বর লালখান বাজারে আবদুল হালিম (শাহ আলম), ১৫ নম্বর বাগমনিরাম ওয়ার্ডে চৌধুরী সাইফুদ্দিন রাসেদ সিদ্দিকী, ১৬ নম্বর চকবাজারে একেএম সালাউদ্দিন কাউসার লাবু, ১৭ নম্বর পশ্চিম বাকলিয়ায় একেএম আরিফুল ইসলাম, ১৮ নম্বর পূর্ব বাকলিয়ায় মো. মহিউদ্দিন, ১৯ নম্বর দক্ষিণ বাকলিয়ায় ইয়াসিন চৌধুরী, ২০ নম্বর দেওয়ান বাজার ওয়ার্ডে হাফিজুল ইসলাম মজুমদার মিলন, ২১ নম্বর জামালখানে আবু মো. মহসিন চৌধুরী, ২২ নম্বর এনায়েত বাজার ওয়ার্ডে এমএ মালেক, ২৩ নম্বর উত্তর পাঠানটুলিতে মো. মহসিন, ২৪ নম্বর উত্তর আগ্রাবাদ ওয়ার্ডে এসএম ফরিদুল আলম, ২৫ নম্বর রামপুরায় শহীদ মো. চৌধুরী, ২৬ নম্বর উত্তর হালিশহরে মো. আবুল হাশেম, ২৭ নম্বর দক্ষিণ আগ্রাবাদে মো. সেকান্দর, ২৮ নম্বর পাঠানটুলিতে এসএম জামাল উদ্দিন জসিম, ২৯ নম্বর পশ্চিম মাদারবাড়িতে মো. সালাহ উদ্দিন, ৩০ নম্বর পূর্ব মাদারবাড়িতে হাবিবুর রহমান, ৩১ নম্বর আলকরণ ওয়ার্ডে দিদারুর রহমান লাভু, ৩২ নম্বর আন্দরকিল্লায় সৈয়দ আবুল বসর, ৩৩ নম্বর ফিরিঙ্গী বাজারে আকতার খান, ৩৪ নম্বর পাথরঘাটায় ইসমাইল বালি, ৩৫ নম্বর বক্সিরহাট ওয়ার্ডে অ্যাডভোকেট তারিক আহমদ, ৩৬ নম্বর গোসাইল ডাঙ্গায় মো. হারুন (ডক), ৩৭ নম্বর উত্তর মধ্যম হালিশহরে মো. ওসমান, ৩৮ নম্বর দক্ষিণ মধ্যম হালিশহরে হানিফ সওদাগর, ৩৯ নম্বর দক্ষিণ হালিশহরে সরফরাজ কাদের, ৪০ নম্বর উত্তর পতেঙ্গায় মো. হারুন, ৪১ নম্বর দক্ষিণ পতেঙ্গায় মো. নুরুল আফছার।

সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন পেয়েছেন রোকসানা বেগম, শাহেনেওয়াজ চৌধুরী মিনু, জিন্নাতুন নেছা জিনু, সকিনা বেগম, মনোয়ারা বেগম মনি, মাহমুদা সুলতানা ঝর্ণা, অ্যাডভোকেট পারভীন আক্তার চৌধুরী, আরজুন নাহার মান্না, খালেদা বোরহান, জেসমিনা খানম, কামরুন নাহার লিজা, সাহিদা খানম, মনোয়ারা বেগম ও জাহিদা হোসেন।

৩০০ নেতাকর্মী নিয়ে যুবদল নেতার পদত্যাগ : চসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় ৩০০ নেতাকর্মী নিয়ে পদত্যাগ করেছেন নগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. এমদাদুল হক বাদশাহ। সোমবার বিকালে ১৭ নম্বর পশ্চিম বাকলিয়ায় সংবাদ সম্মেলন করে এ পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি। বাদশা এই ওয়ার্ড থেকে বিএনপির মনোনয়ন চেয়েছিলেন।

এমদাদুল হক বাদশা যুগান্তরকে বলেন, আমিসহ ৭ জন এই ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী হতে দলীয় মনোনয়নপত্র নিয়েছিলাম। কিন্তু দল যাকে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপির জন্য তার কোনো অবদান নেই। দীর্ঘদিন আমি রাজনীতি করতে গিয়ে অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছি। আমার বিরুদ্ধে ৩৯টা মামলা দেয়া হয়েছে। কয়েকবার জেল খেটেছি।

কিন্তু এসবের কোনো মূল্যায়ন করা হয়নি। দলের এমন সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিএনপি, যুবদল ও অঙ্গ সংগঠনের ৩শ’ নেতাকর্মী নিয়ে দল থেকে পদত্যাগ করেছি। বাকলিয়ায় আমার ব্যক্তিগত অফিসে সংবাদ সম্মেলন করে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছি।

একাধিক সূত্র জানায়, দল মনোনয়ন না দিলেও কয়েকটি ওয়ার্ডে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারেন বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের একাধিক নেতা। দু-একদিনের মধ্যে তারা রিটার্নিং অফিসারের কাছ থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে পারেন।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*