আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থীর মতবিনিময়

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ফরিদুর রহমান খান ইরান (লাটিম) ও বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান (ঘুড়ি) গণসংযোগ, মতবিনিময় সভা ও লিফলেট বিতরণ করেছেন।

শুক্রবার প্রতীক বরাদ্দের পর থেকেই নির্বাচনী প্রচার-প্রচরণা শুরু করেন এ দুই প্রার্থী। তবে মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী গণসংযোগে নামতে দেখা যায়।

ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটারদের সাথে মতবিনিময় করে ভোট ও দোয়া চান তারা। ওয়ার্ডের প্রতিটি অলি-গলিতে ঝুলছে লাটিম, ঘুড়ি ও মেয়র প্রার্থীদের পোস্টার।

সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলছে মাইকিং। প্রচার-প্রচারণা থাকলেও এখনও জনমনে আসেনি নির্বাচনী আমেজ। তবে বিএনপি প্রার্থী বলছেন, ভোটের দিন পর্যন্ত নির্বাচনী পরিবেশ স্বাভাবিক রাখাই মূল চ্যালেঞ্জ।

মঙ্গলবার সকাল থেকে মনিপুরী পাড়ার বিভিন্ন এলাকার গণসংযোগ, মতবিনিময়, লিফলেট বিতরণ করেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী ইরান (লাটিম)। বাড়ি বাড়ি ভোটারদের কাছে ভোট ও দোয়া প্রত্যাশা করেন তিনি।

অন্যদিকে মঙ্গলবার দুপুর ইন্দিরা রোড, আমতলি থেকে পূর্ব রাজাবাজার দক্ষিণের বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ, মতবিনিময়, লিফলেট বিতরণ করেন বিএনপি প্রার্থী আনোয়ার (ঘুড়ি)।

নারী ও শিশু ধর্ষণ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

নারী ও শিশু ধর্ষণ বন্ধ করার দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্র। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বক্তারা ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের দাবি জানিয়ে বলেন, যাতে কেউই এমন ঘৃণিত কাজ করার সাহস না পায়।

মানববন্ধনে ছিলেন বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সভাপতি নাসিমুল আরা হক মিনু, দিল রওশন সিদ্দিকা শিমু, দিলরুবা খান, দেলোয়ারা ইয়াসমিন, শারমিন সিদ্দিকী সোমাসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে কাজ করা অন্য নারী সাংবাদিকরা। এ সময় নাসিমুন আরা হক মিনু বলেন, বিভিন্ন শেণির পাঠ্যসূচিতে সচেতনতার জন্য নারী সম্পর্কে শিক্ষণীয় তথ্য তুলে ধরতে হবে। শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের মধ্যেই নারীদের শ্রদ্ধার বিষয়টি শেখাতে হবে।

তিনি বলেন, প্রতিনিয়ত সমাজে ধর্ষণ বাড়ছে। তা প্রতিহত করার জন্য ধর্ষণ আইনের পরিবর্তন করে আধুনিকায়ন করতে হবে। পাশাপাশি সংবিধানের বিভিন্ন ধারায় নারীর সমঅধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। প্রত্যেকটি স্কুলে মেয়ে শিক্ষার্থীদের আত্মরক্ষার বিষয়ে নানা কৌশল শেখাতে হবে। দিল রওশন সিদ্দিকা শিমু বলেন, অপরাধীদের সাহস এত দূর বেড়েছে যে, তারা সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত স্পর্শ করেছে। এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত।

Author: shafah

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *